Text size A A A
Color C C C C
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

১৯৫৪ এবং ১৯৫৫ সালের উপর্যপরি ভয়াবহ বন্যার পর বন্যার ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে খাদ্য উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে ১৯৫৭ সনে জাতিসংঘের অধীনে গঠিত ক্রুগ মিশন এর সুপারিশক্রমে এতদঞ্চলের পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে ১৯৫৯ সনে পূর্ব পাকিস্তান পানি ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (ইপিওয়াপদা) গঠন করা হয়। বর্তমান বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বাপাউবো) ইপিওয়াপদা এর পানি উইং হিসেবে দেশের বন্যা নিয়ন্ত্রণ, নিষ্কাশন ও সেচ প্রকল্প বাস্তবায়ন করে কৃষি ও মৎস্য সম্পদের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেশের পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনায় প্রধান সংস্থা হিসেবে কার্যক্রম আরম্ভ করে। স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সনের মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশ নং: ৫৯ মোতাবেক ইপিওয়াপদা এর পানি অংশ একই ম্যান্ডেন্ট নিয়ে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বাপাউবো) সম্পূর্ণ স্বায়ত্বশাসিত সংস্থা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় জোন, চট্টগ্রাম এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রধান প্রকৌশলী। প্রধান প্রকৌশলী এবং তাঁর অধীনে ২জন তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী চট্টগ্রাম পওর সার্কেল ও ফেনী পওর সার্কেলে কর্তব্যরত রয়েছেন। চট্টগ্রাম পওর সার্কেল এর অধীনে ৪টি পওর বিভাগ ও ২টি আঞ্চলিক হিসাব কেন্দ্র এবং ফেনী পওর সার্কেলের অধীনে ৩টি পওর বিভাগ ও ১টি আঞ্চলিক হিসাব কেন্দ্র রয়েছে। প্রতিটি পওর বিভাগে ১জন করে নির্বাহী প্রকৌশলী কর্তব্যরত আছেন। বিভাগগুলোর অধীনে অনেকগুলো পওর উপ-বিভাগ রয়েছে। যার প্রতিটিতে ১জন করে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী কর্তব্যরত রয়েছেন।

ছবি